সোমবার , জানুয়ারী ১৮ ২০২১
সদ্য সংবাদ

এপ্রিল-মে মাসের সুদ আয় খাতে না নেয়ার জন্য ব্যাংক গুলোর প্রতি বাংলাদেশ ব্যাংকের নির্দেশ

করোনা ভাইরাস (কোভিড-১৯)-এর প্রাদুর্ভাবের কারণে সৃষ্ট ব্যবসায়িক পরিস্থিতি বিবেচনায় ব্যাংক ঋণ/বিনিয়োগের ওপর আরোপিত/আরোপযোগ্য সুদ/মুনাফা ব্যাংকের আয়খাতে না নিয়ে সুদবিহীন ব্লকড হিসাবে স্থানান্তর করার জন্য ব্যাংকগুলোর প্রতি এক নির্দেশনা প্রদান করেছে।
নভেল করোনা ভাইরাস (কাভিড-১৯) এর প্রাদুর্ভাবের কারণে বাংলাদেশে সম্ভাব্য অর্থনৈতিক প্রভাব মোকাবেলায় দেশের অর্থনৈতিক কর্মকান্ড পুনরুজ্জীবিতকরণ ও গতিশীল রাখার লক্ষ্যে ব্যাংকিং ব্যবস্থার মাধ্যমে স্বল্প সুদে ঋণ/বিনিয়োগ সুবিধা প্রদানসহ বিভিন্ন ধরনের আর্থিক প্রণোদনা প্যাকেজ ঘোষণা করা হয়েছে। বাংলাদেশ ব্যাংকের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী করোনা ভাইরাস এর কারণে সৃষ্ট ব্যবসায়িক পরিস্থিতি বিবেচনায় ব্যাংকের সকল প্রকার ঋণ/বিনিয়োগের ওপর ০১ এপ্রিল ২০২০ তারিখ হতে ৩১ মে ২০২০ তারিখ পর্যন্ত সময়ে আরোপিত/আরোপযোগ্য সুদ/মুনাফা ‘সুদবিহীন ব্লকড হিসাবে’ স্থানান্তর করতে হবে। পরবর্তী নির্দেশনা না দেয়া পর্যন্ত ব্লকড হিসাবে স্থানান্তরিত সুদ/মুনাফা সংশ্লিষ্ট ঋণ/বিনিয়োগ গ্রহীতার নিকট হতে আদায় করা যাবে না এবং এরূপ সুদ/মুনাফা ব্যাংকের আয়খাতে স্থানান্তর করা যাবে না।
কোন ব্যাংক কর্তৃক ইতোমধ্যে সুদ/মুনাফা আয়খাতে স্থানান্তর করা হয়ে থাকলে তা রিভার্স এন্ট্রির মাধ্যমে সমন্বয় করতে হবে। ৪। ব্লকড হিসাবে রক্ষিত/রক্ষিতব্য উপরোক্ত সুদ/মুনাফা সমন্বয়ের বিষয়ে পরবর্তীতে অবহিত করা হবে।
কিছুদিন পূর্বে প্রধানমন্ত্রি রাজশাহী বিভাগের বিভিন্ন জেলা প্রশাসকদের সাথে অনুষ্ঠিত ভিডিও কনফারেন্সে ব্যবসায়ীদের প্রতি আশ্বস্ত করে ব্যাংকের সুদের বিষয়ে চিন্তা না করতে বলেছিলেন। বাংলাদেশের ব্যাংকের এই সার্কুলারটির মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রিও এই আশ্বাস বাস্তবায়নের প্রথম ধাপ হিসাবে বিবেচনা করা যায়। এর ফলে সরকার যে দেশের সম্ভাব্য অর্থনৈতিক প্রভাব মোকাবেলায় যে সেব প্রণোদনা প্যাকেজ ্েঘাষণা করা হয়েছে তার সাথে ব্যবসায়ীদের ব্যাংক লোনের সুদের অংকট্ওি যোগ হবে এমনটি আভাস পাওয়া গেল।
উক্ত সার্কুলারের শেষ লাইনে এটা উল্লেখ করা হয়েছে যে ব্লকড হিসাবে রক্ষিত/রক্ষিতব্য উপরোক্ত সুদ/মুনাফা সমন্বয়ের বিষয়ে পরবর্তীতে অবহিত করা হবে। ব্যাংক এই সুদ যদি নিয়ম মোতাবেক আয়খাতে স্থানান্তর করতে না পারে তাহলে ব্যাংকের যদি বড় ধরনের ক্ষতির দিক রয়েছে। কেননা ব্যাংকের সিংহভাগ আয় অর্জিত হয় সুদ বা মুনাফা থেকে। বাংলাদেশ ব্যাংক কিভাবে ব্লকড খাতে অস্থায়ী ভাবে স্থানান্তরিত সুদ বা মুনাফা কিভাবে সমন্বয় করবে তা ভবিষ্যতে দেখা যাবে।

সম্পর্কিত ডেস্ক রিপোট

এছাড়াও চেক করুন

ঢাকা মেডিকেলের চারতলায় অগ্নিকাণ্ড সিগারেট থেকে

ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের আইসিইউর পাশে বৃহস্পিতবার (৭ জানুয়াির) অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটেছে। তবে আগুন ছড়িয়ে …

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।